Tips And TricksTech News

বিকাশ পিন রিসেট করুন – বিকাশের পাসওয়ার্ড বের করুন | Reset Bkash PIN Number

বিকাশ একাউন্টের পিন ভুলে যাওয়া অনেকেরই হয়ে থাকে। তবে এতে ভয় এর কোনো কিছু নেই। আপনি যদি আপনার বিকাশের পিন ভুলে যান তাহলে আপনি খুব সহজে আবার বিকাশ পিন রিসেট করতে পারবেন।

বন্ধুরা আমরা অনেকে আছি যারা অনেকদিন আগেই বিকাশ একাউন্ট খুলে রেখেছি বা অনেকেই বিদেশে চলে যায়। যার ফলে আমাদের বিকাশের পিন কি দেওয়া হয়েছে তা আমরা ভুলে যায় এবং আমরা ভয় পাই যে, আমাদের বিকাশ অ্যাকাউন্টে থাকা টাকাগুলো কি তুলতে পারব না!

বিকাশ পিন লক হয় কেন?

অটোমেটিক আপনার বিকাশ পিন লক বা বিকাশ ব্লক হবেনা। আমাদের নিজেদের কিছু বিষয়ের জন্য বিকাশ পিন লক হয়ে যায়। আমরা যদি বিকাশ এর পাসওয়ার্ড তিনবার ভুল দিয়ে থাকি তাহলে আমাদের বিকাশ একাউন্টটি লক হয়ে যাবে। বিকাশের এই সিস্টেমেটি করার মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে গ্রাহকদের বিকাশ একাউন্ট যাতে করে হ্যাক না হয়ে যায়। ইতিমধ্যে অনেক ঘটনা ঘটেছে বিকাশ হ্যাক করে টাকা নিয়ে নেওয়া হয়েছে। অবশ্যই আপনারা সতর্ক থাকবেন আপনাদের পার্সোনাল বিকাশ পিন নাম্বারটি কারো সাথে শেয়ার করবেন না। তাই গ্রাহকদের কথা চিন্তা করে বিকাশে তিনবার ভুল পাসওয়ার্ড দেওয়া হলে আপনার অ্যাকাউন্ট লক হয়ে যাবে।

বিকাশ পিন ভুলে গেলে কি করবেন?

বিকাশ বাংলাদেশের মোবাইল ব্যাংকিং এর একটি জনপ্রিয় মাধ্যম। বিকাশ তাদের গ্রাহকদের কথা বিবেচনা করে। গ্রাহকদের সিকিউরিটির জন্য অনেক কঠোর। বিকাশের পিন ভুলে গেলে। বিকাশ হেল্প লাইনে কল দিয়ে আগে পিন রিসেট করে নেওয়া হতো। কিন্তু বর্তমানে বিকাশ তাদের নতুন ফিচারস চালু করছে যেটার মাধ্যমে আপনি ১ মিনিটের ভিতরে বিকাশের পিন রিসেট করে ফেলতে পারবেন।

বিকাশের পিন ভুলে গেলে আপনার নিকটবর্তী বিকাশ প্লাস পয়েন্টে চলে যাওয়া উত্তম। কিন্তু আপনি বিকাশ প্লাস পয়েন্টে গেলে আপনার অনেক সময় এবং আপনার অর্থ নষ্ট হবে।

বিকাশ পিন রিসেট করার জন্য আপনারা প্রথমে কল ডায়াল চলে যান।

বিকাশ পিন

  • প্রথমে *247# ডায়াল করুন।
  • তারপর Bkash Reset PIN অপশনে প্রবেশ করতে 9 লিখে Send করুন।
  • এরপর আপনার এনআইডি/পাসপোর্ট/ড্রাইভিং লাইসেন্স নাম্বার চাওয়া হবে। আপনি বিকাশ একাউন্ট খোলার সময় যে ডকুমেন্ট ব্যবহার করেছেন সেই নম্বর লিখে সেন্ড করুন। মনে রাখবেন আপনি যদি আগের NID কার্ড দিয়ে বিকাশ একাউন্ট খুলে থাকেন তাহলে আপনাকে ওই আইডি কার্ডের নাম্বার দিতে হবে। যদি আপনার কাছে ঐ আইডি কার্ড বা NID নাম্বার না থাকে তাহলে আপনাকে অবশ্যই বিকাশ প্লাস পয়েন্টে গিয়ে আপনার বিকাশ পিন রিসেট করতে হবে।
  • তারপর আপনার জন্মসাল লিখে সেন্ড করুন।
    এরপর আপনাকে ৯০ দিনের মধ্যে করা শেষ ১০টি লেনদেনের মধ্যে মনে আছে এমন একটি বাচাই করতে হবে।অর্থাৎ আপনি সর্বশেষ কোন লেনদেন করছেন লেনদেনটি আপনাকে মনে রাখতে হবে। আপনি যদি রিচার্জ করে থাকেন তাহলে আপনাকে বলতে হবে কত টাকা রিচার্জ করছেন। যদি আপনি ৯০ দিনের ভিতরে কোন লেনদেন না করে থাকেন তাহলে আপনাকে No Transaction বা 7 লিখে সেন্ড করতে হবে।
  • আপনার দেওয়া সকল ইনফরমেশন যদি সঠিক হয় তাহলে আপনাকে একদিন এসএমএসের মাধ্যমে সাথে সাথে জানিয়ে দেওয়া হবে। এবং আপনাকে একটি ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড দেওয়া হবে। বা বিকাশ ওয়ানটাইম পিন দেওয়া হবে।
  • তারপর আবার *247# ডায়াল করুন।
  • এবং 1 লিখে সেন্ড করুন।
  • আবার 1 লিখে সেন্ড করুন।
  • এরপর এসএমএস এ পাওয়া অস্থায়ী পিনটি প্রদান করুন।
  • নতুন পিন পরপর দুইবার প্রদান করুন
  • এরপর দেখবেন আপনার পিন সফলভাবে রিসেট হয়েছেগেছে।

বিকাশ পিন

আশা করি আপনারা সকল বিষয় বুঝতে পারছেন। এভাবে করে খুব সহজে আপনারা আপনার বিকাশ পিন রিসেট করতে পারবেন। যদি আজকের বিষয়বস্তু আপনাদের কাছে ভাল লেগে থাকে। তাহলে আমাদের “কি অ্যান্ড্রয়েড” এর সাথে থাকবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button